Adibasi

Category

  • Amity/মৈত্রী

Artist

Composer

Lyricist

Rating

  • Total Reviews: 0

Released At

  • April 12,2016

Audio Song


Track


Adibasi



 
(RingTone Code)
Gp/Airtel/Teletalk/Robi 5530056  
Banglalink 59114771  
   
For GP : wt space songcode send 4000
For Airtel : ct space songcode send 3123
For Teletalk : tt space songcode send 5000
For Robi : get space songcode send 8466
For Banglalink: down songcode send 2222

সংবিধানের পঞ্চদশ সংশোধনীতে আদিবাসী জনগণকে ‘উপজাতি, নৃ-গোষ্ঠী, ক্ষুদ্র জাতিসত্তা বা সম্প্রদায়’ হিসেবে অভিহিত করেছে সরকার। আদিবাসী ফোরামের সভাপতি জ্যোতিরিন্দ্র্র বোধিপ্রিয় লারমার (সন্তু লারমা) বক্তব্য হচ্ছে, ‘সংবিধানে আদিবাসীদের উপজাতি, ক্ষুদ্র জাতিসত্তা, নৃ-গোষ্ঠী ও সম্প্রদায় হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে। আদিবাসী জনগণ তা প্রত্যাখ্যান করেছে।’

 
উইকিপিডিয়ায় প্রদত্ত তথ্যমতে, আদিবাসী জনগণকে প্রথম জাতি, পাহাড়ি জনগোষ্ঠী, আদিম মানুষ, উপজাতি প্রভৃতি নামে চিহ্নিত করা হতো। আদিবাসী শব্দটির প্রকৃত সংজ্ঞা ও তাদের অধিকার নিয়ে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে প্রচুর বিতর্ক রয়েছে।
 
সব বিতর্ক পাশ কাটিয়ে এটা বলা যায়, সাধারণত কোনো একটি নির্দিষ্ট এলাকায় অনুপ্রবেশকারী বা দখলদার জনগোষ্ঠীর আগমনের পূর্বে যারা বসবাস করত এবং এখনও করে; যাদের নিজস্ব আলাদা সংস্কৃতি, রীতিনীতি ও মূল্যবোধ রয়েছে; যারা নিজেদের আলাদা সামষ্টিক সমাজ-সংস্কৃতির অংশ হিসেবে চিহ্নিত করে এবং বেশিরভাগ ক্ষেত্রে যারা সমাজে সংখ্যালঘু হিসেবে পরিগণিত, তারাই আদিবাসী। আদিবাসীরা কোনো জাতির অংশ বা উপজাতি নয়। বরং তারা নিজেরাই এক একটি আলাদা জাতি।
 
পৃথিবীর পাঁচটি মহাদেশের ৪০টির বেশি দেশে আদিবাসীদের বসবাস। আদিবাসী গোষ্ঠীর সংখ্যা প্রায় ৫,০০০। আদিবাসী জনসংখ্যা ৩০ থেকে ৩৫ কোটি। নীতি-নির্ধারণী প্রক্রিয়া থেকে বাদ পড়ায় যুগে যুগে এদের অনেকে প্রান্তিকায়িত, শোষিত হয়েছে এবং যখন এসব অন্যায় অবিচারের বিরুদ্ধে নিজেদের অধিকারের স্বপক্ষে তারা কথা বলেছে, অধিকাংশ ক্ষেত্রে তারা দমন, নির্যাতন ও হত্যার শিকার হয়েছে।
 
জাতিসংঘ ১৯৮২ সালে সর্বপ্রথম আদিবাসীদের স্বীকৃতি দেয়। জাতিসংঘ ১৯৯৩ সালকে ‘আন্তর্জাতিক বিশ্ব আদিবাসী জনগোষ্ঠী বর্ষ’ ঘোষণা করে। এরপর ১৯৯৫ থেকে ২০০৪ সাল পর্যন্ত ‘আন্তর্জাতিক বিশ্ব আদিবাসী জনগোষ্ঠী দশক’ ঘোষণা করা হয়। ১৯৯৪ সালে জাতিসংঘ ৯ আগস্টকে ‘বিশ্ব আদিবাসী দিবস’ হিসেবে ঘোষণা দেয়। যার উদ্দেশ্য ছিল আদিবাসীদের উদ্বেগের প্রতি দৃষ্টি দেওয়া।
 
আদিবাসীদের উপজাতি বর্ণনা করে এক হিসাবে বলা হয়েছে- বাংলাদেশের উপজাতি জনগোষ্ঠির সিংহভাগ পাবর্ত্য চট্রগ্রাম এবং ময়মনসিংহ, সিলেট ও রাজশাহী অঞ্চলে বসবাস করে।
 
পরিসংখ্যান ব্যুরোর হিসাবে, বাংলাদেশে ক্ষুদ্র জাতিগোষ্ঠীর সংখ্যা ২৭টি। এগুলো হচ্ছে: চাকমা (চার লাখ ৪৪ হাজার ৭৪৮), মারমা (দুই লাখ দুই হাজার ৯৭৪), ত্রিপুরা (এক লাখ ৩৩ হাজার ৭৯৮), ম্র (৩৯ হাজার চারজন), তঞ্চ্যঙ্গা (৪৪ হাজার ২৫৪), বম (১২ হাজার ৪২৪), পাঙ্খুয়া (২ হাজার ২৭৪), চাক (২ হাজার ৮৩৫), খিয়াং (৩ হাজার ৮৯৯), খুমি (৩ হাজার ৩৬৯), লুসাই (৯৫৯), কোচ (১৬ হাজার ৯০৩), সাঁওতাল (১ লাখ ৪৭ হাজার ১১২), ডালু (৮০৬), উসাই (৩৪৭), রাখাইন (১৩ হাজার ২৫৪), মণিপুরি (২৪ হাজার ৬৯৫), গারো (৮৪ হাজার ৫৬৫), হাজং (৯ হাজার ১৬২), খাসিয়া (১১ হাজার ৬৯৭), মং (২৬৩), ওঁরাও (৮০ হাজার ৩৮৬), বর্ম্মন (৫৩ হাজার ৭৯২), পাহাড়িয়া (৫ হাজার ৯০৮), মালপাহাড়ি (২ হাজার ৮৪০), মুন্ডা (৩৮ হাজার ২১২) ও কোল (২ হাজার ৮৪৩)।
 
এদিকে আদিবাসী নেতৃবৃন্দের দাবি করেন বাংলাদেশে ৪৫টি জাতিসত্তার প্রায় ৩০ লাখ আদিবাসী রয়েছে। আদিবাসী হিসেবে সাংবিধানিক স্বীকৃতি দিতে দীর্ঘদিন ধরে দাবি জানিয়ে আসছে পাহাড়ী ও সমতল অঞ্চলের বিভিন্ন আদিবাসী সংগঠন।
 
একসময় পৃথিবীব্যাপী নৃ-বিজ্ঞানী ও গবেষকেরা উপজাতি (বা ট্রাইবাল, অ্যাবওরিজিন) ধরনের শব্দ ব্যবহার করতেন। কিন্তু এসব শব্দের ব্যবহার বাতিল হওয়া দরকার। কারণ কেউ জাতি কেউ উপজাতি এটা হতে পারে না। উপজাতি শব্দ ব্যবহার করলে অনেকটাই অধিকারবঞ্চিত মনে হয়। আদিবাসী শব্দটি ব্যবহার করলে তার একটি রাজনৈতিক তাৎপর্য থাকে। এক্ষেত্রে অধিকারের বিষয়টি বড় হয়ে দেখা দেয়। আদিবাসী মানে তারা এই মাটিরই সন্তান। সুতরাং সব ধর্ম, বর্ণ ও গোত্রের মানুষ এ দেশেরই সন্তান। আমাদের একটাই পরিচয় - আমরা বাংলাদেশি।
The 15th Amendment to the Constitution (Article 23A) recognizes indigenous people as tribes, minor races, ethnic sects and communities. But Bangladesh Adivasi Forum President Jyotirindra Bodhipriya Larma (Santu Larm) said that indigenous peoples had rejected it.
 
According to Wikipedia, indigenous people were referred in different names such as first nation, hill people, native people, tribes etc. But there is a strong debate in national and international arena in this connection.
 
However beyond all the debates we can refer that indigenous people means the people who used to live, also live at present, in their specific lands from much before the intruders arrived there. They have own customs, cultures and values. They identified themselves as independent part of the collective culture and society. In fact, they are not any sub-nation of a nation. They are individually a nation.
 
Indigenous people live in more than 40 countries of the five continents of the world. The number of the indigenous communities is about 5000 and population is 30 to 35 crore.
 
Despite the apparent social and political advances of civilization, the world's Indigenous People continue to experience great challenges at the hands of governments, corporations, and non-governmental organizations. They were extinct in many parts of the world as they were deprived of policy making.  Whenever they protested against it to get back their rights, they were tortured, even killed.
 
United Nations (UN) announced 1993 as the year of International World’s Indigenous People. Later, 1995 to 2004 was declared as a decade of International World’s Indigenous People, aiming to pay attention to the concerns of indigenous peoples. The General Assembly of the United Nations in December 1994 declared that the International Day of the World's Indigenous Peoples would be observed on August 9 each year to promote and protect the rights of the world’s indigenous population.
 
Stating Indigenous peoples as Subnation (Upajati) in a Census report it was said that most of the indigenous people live in Chittagong hill tracks, Mymensingh, Sylhet and Rajshahi.
 
The Statistics Bureau shows there are 27 small ethnic groups in the country; they are as follows: The Chakmas (4 lakhs, 44 thousands and 748); the Marmas (2 lakhs, 2 thousands and 974); the Tripuras (1 lakh, 33 thousands and 798); the Mros (39 thousands and 4); the Tanchangyas (44 thousands and 254); the Pankhoas (2 thousands and 274); the Chaks (2 thousands and 835); the Khyiangs (3 thousands and 899); the Khumis (3 thousands and 369); the Lushais (959); the Koachs (16 thousands and 903); the Santals (1 lakh, 47 thousands and 112); the Dalus (806); the Ushais (347); the Rakhaines (13 thousands and 254); the Monipuris (24 thousands and 695); the Garos (84 thousands and 565); the Hajongs (9 thousands and 162); the Khasis (11 thousands and 697); the Mongs (263); the Oranos (80 thousands and 386); the Barmans (53 thousands and 792); the Paharis (5 thousands and 908); the Maalpaharis (2 thousands and 840); the Mundas (38 thousands and 212); and the Koles (2 thousands and 843).
 
However, leaders of indigenous people claimed that there are about 30 lakh indigenous people of 45 different ethnic groups in the country. Different Adibasi rganisations claim for recognitions as indigenous people.
 
Researchers earlier used the term 'tribal or aboriginal' which should be omitted. It should not be that some will be considered as nation while others will be termed sub-nation. The term sub-nation pushes the indigenous people deprived of rights. The word 'Adibasi' has a political importance that can save their rights and considered them as children of this soil. We all are human being. There should not be any discrimination for different castes, races and religions. Our only identity should be 'we are Bangladeshis'.

Write a review